সামাজিক মিডিয়া শেয়ার করুনFacebookTwitterWhatsAppEmailLinkedIn

আজ ব্যাঙ্গালোরের সরকারি হোমিওপ্যাথি হাসপাতালে গিয়েছিলাম। Outdoor এর কার্ড করলাম। ডাক্তার বাবু আর আমার মাঝে ৫ মিটারের দূরত্ব। সোশ্যাল দূরত্ব বজায় রেখে দূরে বসিয়ে জিজ্ঞাসা করলো কি সমস্যা। আমি বললাম সব। হাসপাতালের দেওয়া প্রেসক্রিপশন দিতে গেলাম ওষুধ লিখে দেওয়ার জন্য, উনি স্পর্শ করলেন না। নিজের বাড়ি থেকে আনা চিরকুট কাগজে ওষুধ লিখে দিলেন।

চিরকুট আর ফাঁকা প্রেসক্রিপশন নিয়ে ওষুধের কাউন্টরে জমা দিলাম, ভিতর থেকে সরকারি ফ্রী ওষুধ দাতা বললেন, প্রেসক্রিপশনে না লিখিয়ে আমি চিরকুটে কেন লিখিয়েছি? আমি গোবেচারার মতো মুখ করে ফ্যালফ্যাল চোখে সব বললাম। উনি মুচকি হেসে ওষুধ দিলেন।

পূর্ববর্তী পোস্ট
পরবর্তী পোস্ট
সামাজিক মিডিয়া শেয়ার করুনFacebookTwitterWhatsAppEmailLinkedIn
আলোচনায় যোগ দিন

সঞ্জয় হুমানিয়া

Avatar

আর্কাইভ