কাবুলি ছোলা হালকা রঙের, মসৃণ ত্বকবিশিষ্ট। এগুলি আফগানিস্তান, উত্তর আফ্রিকা, দক্ষিণ ইউরোপ, ও চিলিতে চাষ হয়। বর্তমানে ভারতীয় উপমহাদেশেও এর চাষ হয়। কাবুলি চানার গুঁড়া অর্থাৎ বেসন দিয়ে অনেক ধরনের খাবার তৈরি করা হয়, যেমন পিঁয়াজি, বেগুনী, পাকোড়া, ইত্যাদি। wikipedia.org


পরম্পরাগত ভাবে যে সব উপকরণ প্রয়োজন : ২০০ গ্রাম কাবলি বা কাবুলি ছোলা, মাঝারি মাপের দুটো পেঁয়াজ, রসুন, আদা কুচি, আমচুর পাউডার,  ধনে জিরে বাটা, এক টুকরো দারুচিনি, চা পাতা, নুন পরিমান মত, সরষের তেল, টমেটো কুচি, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো, কাঁচা লঙ্কা এবং অল্প ধনেপাতা। আমি কিন্তু এত সব মশলা ব্যাবহার করি না, আমি Everest Chhole Masala ব্যাবহার করি। আর সরষের তেলের সঙ্গে একটু ঘি ব্যাবহার করি।

আপনিও যদি Everest Chhole Masala দিয়ে রান্না করতে চান, তবে আমার shortcut পদ্ধতি follow করতে পারেন। রান্না শুরু করার আগে ১০০ গ্রাম কাবলি বা কাবুলি ছোলা সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে উঠেই সিটি মেরে ছোলা সেদ্ধ করে নিন। ২ টেবিল চামচ তেল আর এক টেবিল চামচ ঘি গরম করুন। ২ টি মিহি করে কাটা পেঁয়াজ সোনালি বাদামী হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। ধনিয়া (চলতি ভাষায় যাকে বলে ধনে) এবং লঙ্কা গুঁড়া প্রতিটি ১ চা চামচ করে মিশিয়ে দিন, তার পর ১ টেবিল চামচ এভারেস্ট ছোলা মসলা মিশিয়ে দিন। কম আঁচে অন্তত ৩ মিনিট কষিয়ে নিন। ১ টি গোটা টমেটো, ৩ টি কাঁচা লঙ্কা এবং আধা ইঞ্চি আদা সূক্ষ্মভাবে কুচি করা মিশিয়ে দিন। এর পর সেদ্ধ ছোল ঢেলে দিন এবং লবণ দিয়ে দিন। এবার ৫ মিনিট হাল্কা আঁচে রান্না করুন, অতিরিক্ত স্বাদের জন্য ব্যাবহার করতে পারেন ½ চা চামচ এভারেস্ট চাট মাসালা এবং এভারেস্ট কাসুরি মেথি।

পরম্পরাগত মতে রান্না করতে এই নিয়মে করতে পারেন। রান্না শুরু করার আগে কাবলি বা কাবুলি ছোলা সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। কাবুলি ছোলা সেদ্ধ করার সহজ উপায় হল সিটি মেরে। কুকারে জল দিয়ে কাবুলি ছোলা দিয়ে দিন, সঙ্গে দিতে হবে দারচিনি, একটা ছোট কাপড়ে চা পাতা বেঁধে দিয়ে পাঁচটা সিটি দিতে হবে (আমি চা পাতা দিই না)। মিহি করে পিঁয়াজ, আদা, রসুন একটু শুকনো ভেজে টমোটো দিয়ে পেস্ট করে নিতে হবে। পাত্রে তেল দিয়ে পেস্ট ঢেলে দিয়ে বাকি সব মসলা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে ছোলা ও কাঁচা লঙ্কা দিয়ে মেশাতে হবে। তার পর দু কাপ জল দিয়ে পাঁচ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে। একটু পরে ঢাকা খুলে ভালো করে মিশিয়ে গায়ে মাখা করে নামিয়ে নিতে হবে, ওপরে ধনেপাতা ছড়িয়ে দিলেই হল ছোলা তৈরি।

Additional যদি সম্ভব হয়ে একটু ঘিয়ে ভাজা নুচি (ভদ্দর নোকে যাকে বলে লুচি) সহ হাউ মাউ খাউ করে নিন।

সঞ্জয় হুমানিয়া | বেঙ্গালুরু, ভারত
২রা অক্টোবর ২০২১

★ আমার লেখায় অজস্র বানান ভুল থেকে যায়, পাঠকের চোখে পড়লে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন ★

Facebook Comments Box