The সুইসাইড Status

সামাজিক মিডিয়া শেয়ার করুনFacebookTwitterWhatsAppEmailLinkedIn

“আত্মহত্যার চেষ্টা করেছি অনেকবার কিন্তু কিভাবে যেন বেঁচে যাই “

[fb_pe url=”https://www.facebook.com/permalink.php?story_fbid=2235956459968854&id=100006635655286″ bottom=”30″]

আমার এক বাংলাদেশী ফেসবুকের বন্ধু এক মাস আগে, বেশ কয়েকদিন ধরেই এমন স্ট্যাটাস দিচ্ছিলেন তার ফেসবুকের দেওয়ালে। বেশ কয়েকটা এমন নেগেটিভ স্ট্যাটাস দেখার পরে আমি আর থাকতে না পেরে ওনার স্ট্যাটাসে কমেন্ট করেছিলাম।

“আপনার মৃত্যু ভয় আছে। আপনি পারবেন না, ছেড়ে দিন চেষ্টা”

[fb_pe url=”https://www.facebook.com/permalink.php?story_fbid=2235956459968854&id=100006635655286&comment_id=2236273519937148″ bottom=”30″]

ওনার অন্যনা বন্ধুরা অবশ্য ওনাকে রীতিমতো আত্মহত্যা না করার পরামর্শ ও আত্মহত্যার কূফল বোঝাতে ব্যস্ত ছিলেন। আমার কমেন্টে HaHa reaction দিয়ে আবার সেই একই স্ট্যাটাস। আমি বাধ্য হয়ে ওনাকে unfriend করে দেই। আমি আশাবাদী মানুষ, এত হতাশা সহ্য করতে পারি না। মনে মনে ভেবেছিলাম, মরবি তো মর, স্ট্যাটাস দিয়ে মরার কি আছে।

প্রায় এক মাস পর হঠাৎ মনে পড়লো ওই বন্ধুর কথা। ভাবলাম দেখি তো ফেসবুক প্রোফাইলে কোনো update আছে কি? থাকলে বেঁচে আছে, আর না থাকলে টেসে গেছে। ও মা!! আমি ওনার প্রোফাইলে গিয়ে দেখি উনি খোশ মেজাজে ফেসবুক চালিয়ে যাচ্ছেন। আমার গা রি-রি করে জ্বলে গেল। ওনার লাষ্ট স্ট্যাটাসে কমেন্ট করলাম।

গত মাসে আপনি ক্রমাগত সুইসাইড করবেন বলে স্ট্যাটাস দিচ্ছিলেন। আমি ভেবেছিলাম আপনি সত্যি আত্মহত্যা করবেন। অনেকেই অপনার স্ট্যাটাসে আপনাকে শান্ত হতে বলছিলো, আপনাকে বোঝাচ্ছিলো। বেশ কয়েক দিন ধরেই আপনার নেগেটিভিটি আমার উপরেও ভর করছিল। শেষমেশ আপনার সেই নেগেটিভ তরঙ্গের বাইরে আসার জন্য আপনাকে unfriend করে unfollow করে দিয়েছিলাম। হয়তো সত্যি বলতে আপনার সুইসাইড আমি দেখতে চাইছিলাম না তাই।

আজ হঠাৎ মনে হলো, আপনি বেঁচে আছেন কি দেখি তো। আপনার প্রোফাইল এসে দেখি আপনি দিব্বি খোশ মেজাজে বেঁচে আছেন, আত্মহত্যা করেননি।

এখন আমার একটাই কৌতুহল, আপনি কিভাবে নিজেকে বাঁচিয়ে ফেললেন? আপনার ভক্ত ও বন্ধুবান্ধবের কমেন্টের জোরে? নাকি মৃত্যু ভয়ে??

[fb_pe url=”https://www.facebook.com/permalink.php?story_fbid=2261783790719454&id=100006635655286&comment_id=2261925810705252″ bottom=”30″]
পূর্ববর্তী পোস্ট
পরবর্তী পোস্ট
সামাজিক মিডিয়া শেয়ার করুনFacebookTwitterWhatsAppEmailLinkedIn
আলোচনায় যোগ দিন

4 comments

Archives

Please note

This is a widgetized sidebar area and you can place any widget here, as you would with the classic WordPress sidebar.