হোসকোটে বা হোসাকোট (ইংরেজি: Hoskote) ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের বেঙ্গালুরু গ্রামীণ জেলার একটি স্থান। এটির অবস্থান অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ হল ১৩.০৭° উত্তর ৭৭.৮° পূর্ব। সমূদ্র সমতল হতে এর গড় উচ্চতা হল ৮৭৫ মিটার (২৮৭০ ফুট)। Source: wikipedia.

“তারে আমি চোখে দেখেনি, তার অনেক গল্প শুনেছি
গল্প শুনে তারে আমি অল্প অল্প ভালবেসেছি”

– গীতিকার মুকুল দত্ত

ঠিক এমন ভাবেই হোসকোট বিরিয়ানির ( hoskote anand biryani ) প্রচুর সুনাম ও সুখ্যাতি শুনেছি বেঙ্গালুরুতে পা রাখার পর থেকে। আর তারে চোখে না দেখেই, শুধু অনেক গল্প শুনেই তার প্রেমে পড়ে গিয়েছিলাম। শুনেছিলাম ভোর চারটে থেকে নাকি লাইন লাগিয়ে দাড়িয়ে থাকে মানুষে এই অমৃত পাওয়ার জন্য। প্রথম প্রথম বিশ্বাস হয়নি, পরে Youtube আর facebook এ ভিডিও, ছবি আর লেখা পড়ে বাধ্য হয়ে ঢোক গিলে বিশ্বাস করতে হয়েছিলো, কারন এদিকে আবার লেখক লিখে গিয়েছেন,

“There are more things in heaven and earth”
অর্থাৎ “স্বর্গে ও মর্ত্যে ভাবনার সীমার বাইরেও অনেক কিছু আছে ”

– William Shakespeare

সত্যি তো, মানুষের জ্ঞান কত সীমিত! চাঁদ চোখে দেখা যায় তাই চাঁদ অনেক কাছে। এদিকে অ্যামেরিকা চোখে দেখা যায় না তাই অনেক দূরে। অনেকে তো আবার এটাও বিশ্বাস করতে চায় না যে অ্যামেরিকা আছে। এখন তো আবার দু-বছর ইস্কুল কলেজ সব বন্ধ, মানুষ জ্ঞান আহরণ করতে চাইলেও তো কোন উপায় নাই। ঘরে বসে এখন তো আবার জ্ঞান আহরণ করার দুটি মাধ্যম খুবই জনপ্রিয়। প্রথমটি Youtube আর দ্বিতীয়টি Facebook. কোন এক যুগে মানুষ মোটা মোটা বই পড়ে নিজের জ্ঞানের পরিধি বাড়িয়ে নিতো। এখন যুগ পালটেছে, মানুষ গু-গুলেও জ্ঞানের পরিধি বাড়িয়ে নিতে পারে। কিন্তু সেখানেও তো পড়তে হবে! অত ধৈর্য বা সময় আছে কার কাছে যে google থেকে খুঁজে কোন প্রবন্ধ পড়বে? এখন যুগ এমন হড়হড়িয়ে পাল্টে গেছে যে, এখন শুধু মাত্র এই দুটি মাধ্যমই সর্বোচ্চ ব্যবহৃত। এক youtube আর দ্বিতীয় হল facebook. আমি এমনও দেখেছি একজন চাকরিপ্রার্থী নিজের আত্মবিশ্বাসের উপরে সম্পূর্ণ আস্থা হারিয়ে চাকরির আবেদন পত্র কিভাবে লিখতে হয় সেটা Google এ না খুঁজে বা অন্য কাউকে জিজ্ঞাসা না করে সরাসরি Youtube বা Facebook এ খোঁজ শুরু করে। আর পেয়েও যায় তার প্রয়োজনীয় video tutorial.

আমার এই একটাই দোষ, লিখতে বসলেই খালি হিজিবিজি কথা লিখতে শুরু করি। শুরু করেছিলাম হোসকোট বিরিয়ানি লিখবো বলে আর লিখছি হিজিবিজি কি সব।

ভোর ৫টায় অ্যালার্ম বাজার আগেয়েই ঘুম ভেঙে গেলো। আমি একটা জিনিস লক্ষ্য করেছি যে, আগামী কাল যদি কোন প্রয়োজনীয় কাজ খুব সকালে বা ভোর বেলা করার থাকে, তো অ্যালার্ম বাজার আগেই নির্দিষ্ট সময়ের আগেই ঘুম ভেঙে যায়। এ খেত্রেও সেটাই ঘটে গেলো। প্রাতঃক্রিয়া সম্পন্ন করে, অর্থাৎ প্রাতঃকালীন শৌচ-ধৌত-স্নান উপাসনাদি কর্মচতুষ্টয় শেষ করে আমি তৈরি হয়ে গেলাম। কয়েক মাস থেকে আমি হোমিওপ্যাথি chelidonium mother tincture খাচ্ছি সকালে উঠে। খালি পেটে ১০ ফোঁটা ১ কাপ জলে মিশিয়ে ঢকাস করে। পাঠকগণ, অনুগ্রহ করে পড়বেন, আমি কিন্তু খালি পেটে শুধু মাত্র ওষুধ খেয়ে সকাল ৫টায় যাত্রা শুরু করছি।

রুট ম্যাপ: Home (LOGOFF – SS Enterprises) > Sahyadri Layout, Panduranga Nagar > Ananad Dum Biriyani (Hoskote)

Subhabrata Roy

Subhabrata Roy

Subhabrata দার সাথে ফেসবুকে পরিচয়, অত্যন্ত মিশুকে মানুষ। ওনার সাথে আমার এই প্রথম কোথায় ঘুরতে যাওয়া। আমি বাড়ি থেকে বেরিয়ে ওনাকে pick করলাম, তার পর ছুট লাগালাম আমাদের গন্তব্যের দিকে। আজ আমাদের টার্গেট up-down ৮০+ কিলোমিটার। রাস্তায় তেমন কোন উল্লেখযোগ্য ঘটনা আমরা ঘটাইনি। কাঁটায় কাঁটায় সকাল ৬ঃ৫২ পউছালাম আনান্দ দম বিরিয়ানি ( anand dum biriyani )। পৌঁছেই নাকে এলো মাংস রান্নার সুন্দর ঘ্রাণ। পাঠকগণ অনুগ্রহ করে খেয়াল করবেন, আমি কিন্তু খালি পেটে ওষুধ খেয়ে সকাল ৫টায় যাত্রা শুরু করেছিলাম। মাংস রান্নার মন মাতানো ঘ্রাণ আমার ক্ষুধা ১০ গুন বাড়িয়ে দিলো। আমি মনে প্রানে ক্ষুধার্ত।

প্রায় ২০০ মানুষের পিছনে ভেজা বিড়ালের মত বাধ্য হয়ে দাড়িয়ে পড়লাম। কয়েক মিনিটের মদ্ধেই আমাদের পিছনে আরও ৫০/৬০ জন জমা হয়ে গেলো। পুউউ ঝিক ঝিক করে আমাদের লাইন এগিয়ে যেতে লাগলো। এখানে ‘ফেলো কড়ি মাখো তেল’ সিস্টেম। প্রথমে payment করে স্লিপ নিতে হবে, তার পর বিরিয়ানি ( anand dum biryani hoskote )। ২-প্লেট এখনি হাউ মাউ খাউ এর জন্য আর ৪-প্লেট পার্সেল, মোট ১৫০০ টঙ্কা এবং পাঠকগণ অনুগ্রহ করে পড়বেন, সম্পূর্ণ বিরিয়ানির দাম স্বয়ং Subhabrata দা দিয়েছেন।

প্লানিং করা থেকে শুরু করে বিরিয়ানি ( anand biryani hoskote ) হাতে পাওয়া পর্যন্ত একটা টানটান উত্তেজনা আমার মধ্যে কাজ করছিলো। কিন্তু বিরিয়ানি হাতে পাওয়ার পরেই সেই উত্তেজনা ফুঁস করে ফুটো হয়ে যাওয়া বেলুনের মত চুপসে গেলো। বিরিয়ানি ( hoskote anand biryani) মুখে তোলার আগেই আমার মন ভেঙে চৌচির হয়ে গেলো। এত পরিশ্রম এত ক্লান্তি এত খিদে এই মাংসের খিচুড়ির জন্য? তাও আবার যদি ভালো বড় মটন পিস থাকতো তোঁ মন কে সান্তনা দেওয়ার চেষ্টা করতাম। কিন্তু এতে তো ২/৩ টুকরো ছোট মাংস আর চর্বি! দুঃখে রাগে আমার সর্বাঙ্গ জ্বালা করতে লাগলো। আমার থেকেও খারাপ অবস্তা শুভব্রত দার, ওর তো আবার মাংস কম চর্বি বেশি! এ দুঃখ আমারা কোথায় রাখবো? সত্যি বলছি, শুধু মাত্র খিদে মেটানোর জন্য এই মাংস খিচুড়ি ( hoskote anand dum biryani ) খেয়ে ফেললাম গোগ্রাসে।

হোসকোট বিরিয়ানি ( anand dum biriyani ) আমার ভালো লাগেনি। কিছু অং বং ছং মসলা, পুদিনা-আআআআ-হহহহহ পাতা আর অত্যধিক গোল মরিচ ছাড়া আর কোন স্বাদ এতে নেই। জানিনা সকালে যে মাংসের ঘ্রাণ আমি পেয়েছিলাম তা এই মাংস-খিচুড়ি রূপি বিরিয়ানিতে ( hoskote anand biryani ) পাইনি কেন! যারা কলকাতায় আলু বিরিয়ানি / kolkata aloo biryani, ঢাকার কাচ্চি বিরিয়ানি / dhaka kacchi biryani, লখনৌ বিরিয়ানি / lucknowi biryani, হায়দ্রাবাদের দম বিরিয়ানি / hyderabadi dum biryani, ব্যাঙ্গালোরের ডোনে বিরিয়ানি / bangalore donne biryani, তামিলনাড়ু আম্বুর বিরিয়ানি / tamil nadu ambur biryani, ইত্যাদি খেয়েছেন তারা এটিকে এক কথায় খিচুড়ি ছাড়া আর কিছুই ভাবতে পারবেন না। অনেক vlogger ফাউ খেয়ে অনেক গুণগান করেছে youtube এ। এই সব youtuber কথা শুনে আমাকে মাংসের খিচুড়ি খেতে হয়েছে। আমার পরিচিত স্থানীয় কিছু সুশিক্ষিত মানুষ বলে, এটা নাকি

“Unique kind of biryani of its own style”

Youtube ঘেঁটে দেখে নিন, এই বিরিয়ানির গুন গান করা অনেক ভিডিও পেয়ে যাবেন। এক কথায় ২৫০ টাকায় জঘন্য খাদ্য খেলাম। ফ্রি পেলে জঘন্য বলতাম না।

তাহলে  কেন হোসকোট বিরিয়ানি এত জনপ্রিয়?

আমি এটাকে বিরিয়ানি বলব না, এটা মাংসের খিচুড়ি যা অং বং ছং মসলা, পুদিনা-আআআআ-হহহহহ পাতা আর অত্যধিক গোল মরিচ দিয়ে রান্না হয়েছে। মানুষ বিরিয়ানির টানে এখানে যায় না। সকলে শুধু মাত্র একটা morning ride নিতেই বেঙ্গালুরু থেকে জমা হয় এখানে সবাই। সপ্তাহে মাত্র ৩ দিন (মঙ্গলবার, শুক্রবার আর রবিবার) পাওয়া যায় এই মাংসের খিচুড়ি, এটাও একটি বড় কারন। মানুষ যা সহজে পায় না চিরকাল তার প্রতি একটা আলাদা টান অনুভব করে এবং মঙ্গলবার, শুক্রবার আর রোববার এই টান অনেকের মধ্যে তীব্র হয়ে ওঠে। আর শুধু মাত্র ২৫০ টাকার খিচুড়ি, এটা ভেবেই হয়তো অনেকে ইঁদুর দৌড় লাগায়। জীবনে মাত্র ১ বার খেয়ে আর দ্বিতীয় বার ২৫০ টাকা খরচা করে এটা আমি খাবো না। আর লোক দেখানো লম্বা লাইন, এটাও জনপ্রিয় হওয়ার আর একটি কারন হতে পারে। যে সকল ভোজন রসিক মানুষ tasty আর spicyর difference বোঝেন তারা বুঝতে পারবেন, এই মাংসের খিচুড়ি spicy, কিন্তু tasty একেবারেই নয়। বাকি আপনাদের উপরে, আমার কথায় কান দেবেন না, আমি নিন্দুক, অনেক কিছুই বলবো। নিজে কিনে একবার খেয়ে দেখুব।

anand biryani hoskote timings

Tuesday, Friday and Sunday / মঙ্গলবার, শুক্রবার আর রবিবার – 7 am to 10 pm / সকাল ৭টা থেকে সকাল ১০টা

anand biryani hoskote price

Full mutton anand dum biriyani – ₹250 / এক থালা মটন বিরিয়ানি মাত্র ₹২৫০

★ আমার লেখায় অজস্র বানান ভুল থেকে যায়, পাঠকের চোখে পড়লে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন ★

Anand Dum Biriyani – Hoskote | আনান্দ দম বিরিয়ানি – হোসকোট

Facebook Comments Box